কোরআন ও সহীহ সুন্নাহ ভিত্তিক বার্তা প্রচার করাই হল এই ওয়েবসাইটের মূল উদ্দেশ্য।। সম্মানিত ভিজিটর ওয়েবসাইটে যদি কোন অকার্যকর লিঙ্ক দেখেন তাহলে অনুগ্রহ করে "Contact Menu" এর মাধ্যমে জানান।। জাযাক আল্লাহ খাইরান!!

 ফিৎনা কাকে বলে ?ইসলাম ধর্মে ফিৎনার সংজ্ঞা কি ?

*** ফিৎনা ” فتنة ” শব্দটি পবিত্র কুরআন ও হাদিসে বহুবার উচ্চারিত হয়েছে । বহুবচন ” فتن ” … ব্যাপক অর্থে ব্যবহ্রত হয় ।

*** ফিৎনা অর্থ পরীক্ষা । আল্লাহপাক বলেন ,
إنما اموالكم و اولادكم فتنة
সূরা আত তাগাবুন ১৫

*** ফিৎনা অর্থ আলামত / নিদর্শন । বোখারি- মুসলিম শরীফ গুলোতে কেয়ামতের আলামত অধ্যায়কে كتاب الفتن বলা হয়েছে ।

*** ফিৎনা অর্থ দাঙ্গামা- হাঙ্গামা , সন্ত্রাস , সংঘর্ষ , হানাহানি , গালাগালি , মারামারি , বাড়াবাড়ি ইত্যাদি । আল্লাহপাক বলেন ,
والفتنة أشد من القتل
সূরা আল্ বাক্বারা ১৯১
و الفتنة اكبر من القتل
সূরা আল্ বাক্বারা ২১৭
এখানে ফিৎনা অর্থ الفتنة بمعني الفساد

*** স্বামী/ স্ত্রী , ভাই- বোন , ভাই – ভাইদের মধ্যে যখন কোন কারণে মনমালিন্যতা শুরু হয় , তা’ সূচনাতেই Stop করা না গেলে ফিৎনার রূপ নেয় ।

*** ফরজ ইবাদত ও আমলগুলো বাদ দিয়ে যখন ইসলাম ধর্মের খেদমতের দাবীদার দলগুলো ছোটখাটো বিষয় নিয়ে পরস্পর বিতর্কে লিপ্ত হয় , সেখান থেকে ফিৎনার উৎপত্তি ঘটে । আর এ ফিৎনা তাঁদেরকে পথভ্রষ্টতার দিকে নিয়ে যায় ।

*** শরিয়তে ফিৎনা সৃষ্টির হুকুম হলো কবিরা গুনাহ । আল্লাহপাক এ গুনাহটিকে হত্যার চেয়েও জঘন্য বলেছেন । মহানবী সা: বলেছেন , আমি সে ব্যক্তিকে জান্নাতে নিয়ে যাওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি , যে সত্যের উপর থাকা সত্ত্বেও বিবাদের আশংকায় নীরব থাকে ।”
আবুদাউদ শরীফ ৪৮০০
মহানবী সা: বলেছেন , এমন একটি সময় অত্যাসন্ন , যখন ঘুমন্ত ব্যক্তি জাগ্রত ব্যক্তি অপেক্ষা উত্তম হবে । জাগ্রত ব্যক্তি উপবিষ্ট ব্যক্তি অপেক্ষা উত্তম হবে । উপবিষ্ট ব্যক্তি দন্ডায়মান ব্যক্তির চেয়ে উত্তম হবে । দন্ডায়মান ব্যক্তি হেঁটে চলা ব্যক্তি অপেক্ষা উত্তম হবে । হেঁটে চলা ব্যক্তি দৌড়ে চলা ব্যক্তির চেয়ে উত্তম হবে । যে ফিৎনায় লিপ্ত হবে , উক্ত ফিৎনা তাকে ধ্বংস করে দেবে । ঐ সময়ে নিরাপদ স্হানে চলে যাও । ”

{সৌজন্যেঃ Mqm Saifullah Mehruzzaman}

Share This Post
error:

Powered by Dragonballsuper Youtube Download animeshow